Monday, September 23, 2019
Home > আঞ্চলিক সংবাদ > নওগাঁর আত্রাইয়ে বিবাদমান জমিতে জোরপূর্বক স্থাপনা নির্মানের অভিযোগ

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিবাদমান জমিতে জোরপূর্বক স্থাপনা নির্মানের অভিযোগ

আতাউর শাহ্:
নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর আত্রাই উপজেলার বিবাদমান জমিতে জোরপূর্বক স্থাপনা নির্মানের অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার হাটকালুপাড়া ইউনিয়নের বান্দাইখাড়া বাজারে পাশে বিবাদমান জমিতে এ স্থাপনা নির্মাণ করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে ভূক্তভোগী সুমন বাদী হয়ে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আদালতে মামলা করেন। পরবর্তীতে আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক এলাকায় শান্তি শৃংঙ্খলা রক্ষায় স্থাপনা নির্মান কাজ বন্ধ করতে পুলিশী নিষেধাজ্ঞার নোটিশ প্রতিপক্ষকে দিলেও স্থাপনা নির্মান কাজ বন্ধ করেনি তারা।
জানা গেছে, আত্রাই উপজেলার হাটকালুপাড়া ইউনিয়নের রঘুনন্দন সাহার প্রথম ছেলে পীরু গোপাল সাহা’র ছেলে সুমন সাহা তফশিল সম্পত্তি, জেলা নওগাঁ, থানা আত্রাই, মৌজা বান্দাইখারা কসবা, এস/এ খতিয়ান নং-২১৩, আর/এস খতিয়ান নং-৬০৮, হাল দাগ নং-১৪৬৮, ১৪ শতাংশ জমির কাতে ৫ শতাংশ ও একই খতিয়ানের হাল দাগ ১৪৮৬ এর ৫ শতাংশ মোট ১০ শতাংশ জমির খতিয়ান মূলে মালিকানা হিসেবে দির্ঘদিন থেকে ভোগ দখল করিয়া আসছিলেন।
অপর দিকে রাধা মাধব সাহার ছেলে রমনী মোহন সাহার নিকট থেকে আর/এস খতিয়ান নং-৬৩১, হাল দাগ নং-১৪৬৮, ৯ শতাংশ জমির কাতে পৌনে তিন শতাংশ জমি ১৯৭৭ সালের ২৫ আগষ্ট ৮৮২০ নম্বর বিক্রয় কবলা দলিল করে নেয় মৃত অনিল সাহার স্ত্রী মীরা রানী সাহা।
দীর্ঘ ৪০ বছর পূর্বের দলিল দেখিয়ে মীরা রানী সাহার ছেলে খোকন সাহা ও গগণ সাহা জোর পূর্বক সুমনের দখলীয় সম্পত্তিতে স্থাপনা নির্মাণ করা হচ্ছে। এ নিয়ে ভূক্তভোগী সুমনের লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ০৩/০৩/১৮ ইং তারিখে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গ্রাম আদালতে শালিস বৈঠকে সম্পত্তির সভাকক্ষের দক্ষিনাংশে সুমনের বলে রায় প্রদান করেন।
পরবর্তীতে প্রতিপক্ষ মীরা রাণী সাহা ইউনিয়ন পরিষদের ওই রায় বাতিল ও ওই সম্পত্তির উপর চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে গত ০৮/০৭/১৮ তারিখে আত্রাই সহকারী জজ আদালতে মামলা করেন। যার মামলা নং-৪৪/২০১৮ অঃ প্রঃ। আদালতে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে মামলা দায়ের করার পর, তিনি নিজেই সম্পত্তির উপর স্থাপনা নির্মাণের কাজ অব্যাহত রেখেছেন।
মীরা রাণী সাহার ছেলে খোকন সাহা বলেন, আমরা ১৯৭৭ সাল থেকে ওই সম্পত্তি ভোগ দখলে রেখেছি। প্রয়োজনে ওই সম্পত্তির উপর প্রাচীর নির্মাণ করছি। অপরপক্ষ কি মূলে ওই সম্পত্তি নিজের বলে দাবী করছেন, তারাই ভাল জানেন। স্থাপনা নির্মানের সময় অপরপক্ষ মৌখিক ভাবে বাঁধা দিয়েছিল। তবে কোর্ট থেকে কোন নির্দেশনা আসেনি। বিধিনির্ষেধ আসলে কাজ বন্ধ করে দেয়া হবে।
স্থানীয় ইউপি মেম্বার আবু তালেব বলেন, গত দুই মাস আগে ওই সম্পত্তি নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে মামলা হলে চেয়ারম্যান উভয় পক্ষকে নিয়ে বসেন। সেখানে কাগজপত্র দেখে প্রতিয়মান হয় যে সম্পত্তির মালিক সুমন। মামলার রায় পছন্দ না হওয়ায় খোকন সাহা আবার আপিল করেন এবং জোর পূর্বক সেখানে স্থাপনা নির্মাণ করছেন। এতে করে যে কোন সময় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে পারে।
আত্রাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রদিপ কুমার বলেন, আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক থানার নোটিশ নিয়ে গিয়ে প্রতিপক্ষদের স্থাপনা নির্মাণ কাজ করতে নির্ষেধ করা হয়েছে। এলাকায় শান্তি শৃংখলা বজায় রক্ষার্থে এই নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

আত্রাই থানার ভারাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোবারক হোসেন বলেন, বান্দাইখারা এলাকায় জমিতে স্থাপনা নির্মানকে কেন্দ্র করে বেশ কিছুদিন যাবৎ দ্বন্দ চলছিল। আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক এসআই প্রদিপকে নির্মান বন্ধের ব্যাপারে নোটিশ করা হয়েছে।

নওগাঁয় বিদ্যুৎ পিষ্ট হয়ে ধান-চাতালের এক শ্রমিকের মর্মান্তিকভাবে মৃত্যু
নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ নওগাঁর মহাদেবপুরে বিদ্যুৎ পিষ্ট হয়ে ধান-চাতালের এক শ্রমিকের মর্মান্তিকভাবে মৃত্যু হয়েছে। এ মর্মান্তিকভাবে মৃত্যুর ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সকাল ৭ টারদিকে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নওহাটামোড় পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ এস আই মোহাম্মদ মামুনুর রশিদ জানান, মহাদেবপুর উপজেলার ভীমপুর ইউনিয়নের বাগাচারা গ্রামের জৈনক লুৎফর রহমানের ( আনিছুর চাউল কল) নামের একটি ধান চাতালে ধীর্ঘদিন ধরে শ্রমিকের কাজ করে আসছিলেন পাশ্ববর্তী হর্সি গ্রামের মৃত জব্বারের ছেলে আব্দুল জলিল ওরফে জালু(৫২)। ঘটনারদিন বুধবার সকালে ধান-চাতালের চুলায় জ্বাল দেয়ার মটরে বিদ্যুতের লাইন তার জোড়া দেয়ার সময় অ-সাবধানতাবশত বিদ্যুৎ পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারাযান শ্রমিক আব্দুল জলিল ওরফে জালু। সংবাদ সংগ্রহকালে ঘটনাস্থল বাগাচারা ( আনিছুর চাউল কলে) এস আই মোহাম্মদ মামুনুর রশিদ সহ সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স উপস্থিত ছিল। এবং নিহত শ্রমিক আব্দুল জলিল ওরফে জালুর মৃতদেহ ও ধান-চাতালেই ছিল বলেই জানিয়েছেন স্থানিয় লোকজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *