Tuesday, July 16, 2019
Home > খেলাধূলা > ২০১৯বিশ্বকাপ থেকে অহংকারী ভারতের করুণ বিদায়

২০১৯বিশ্বকাপ থেকে অহংকারী ভারতের করুণ বিদায়

এপিপি বাংলা ডেক্স : আজকের ম্যাচে যে দল জয় পাবে সেই দল সরাসরি ফাইনালে চলে যাবে। এমন সমীকরণের ম্যাচে ভারতের সামনে ২৪০ রানের মামুলি লক্ষ্য দেয় নিউজিল্যান্ড। এই লক্ষ্য ক্রিকেটের পরাশক্তি ভারতের ব্যাটিং লাইনের কাছে কিছুই না। তবে এই রান তাড়া করতে নেমে হেরে যায় ভারত।

এই মামুলি লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইনিংসের শুরুতেই নিউজিল্যান্ডের বোলিং তোপে ভেঙ্গে পরে ভারতীয় ব্যাটিং লাইনআপ। রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি ও লোকেশ রাহুলের মত খেলোয়াররা দলীয় ৫ রানের প্যাভিলিয়নে ফিরে যায়। এই তিন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ৫ রানের মধ্যে করেন ৩ রান। যখন ৫ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পরে ভারত তখন ক্রিজে নেমে ধীর গতিতে খেলতে থাকেন দীনেশ কার্তিক।

এই ব্যাটসম্যান বিশ্বকাপের মত আসরে খেলতে নেমে যেন ফিরে গিয়েছিলেন টেস্ট ক্রিকেটে। ২০ বল খেলেও রান করতে পারেনি তিনি। তবে ২১তম বলে খুলেন রানের খাতা, ট্রেন্ট বোল্টকে চার মেরে। এরপরে দুই রান করেই প্যাভিলিয়নে ফিরে যায় কার্তিক। আউট হওয়ার আগে করেন ২৫ বলে ২ রান।

নিউজিল্যান্ডের বোলিং তোপে যখন কোণঠাসা ভারতের টপ অর্ডার। তখন দলের জন্য একাই লড়ে জান রিশাব প্যান্ত কিন্তু ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ হন তিনি। দলীয় ৭১ রানে মিচেল স্যান্টনার বলে কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে যায়। আউট হওয়ার আগে এই ব্যাটসম্যান ৫৬ বলে ৩২ রান করেন। এর কিছুক্ষন পরেই ৬২ বলে ৩২ রান করে আউট হয়ে যান হার্ডিক পান্ডিয়া।

এরপর দলের বিপদে হাল ধরে মহেন্দ্র সিং ধোনি ও রবীন্দ্র জাদেজা। ধোনি শুরু থেকেই খেলছেন দেখেশুনে আর জাদেজা খেলছে আক্রমণাত্মক। কিন্তু এই দুই ব্যাটসম্যানের ব্যাটিং নৈপুণ্যে খুব কাছে গিয়েও জিততে পারেনি ভারত।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ২২১/১০ (৪৯.৩ ওভার)

নিউজিল্যান্ড: ২৩৯/৮ (৫০ ওভার)

ভারতের একাদশ: লোকেশ রাহুল, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, ঋষভ প্লন্ট, এমএস ধোনি, দিনেশ কার্তিক, হার্ডিক পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাদেজা, ভুবনেশ্বর কুমার, চাহাল, জাসপ্রিত বুমরাহ।

নিউজিল্যান্ডের একাদশ: মার্টিন গুপটিল, হেনরি নিকোলস, কেন উইলিয়ামসন, রস টেলর, টম ল্যাথাম, জেমস নিশাম, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, মিচেল স্যান্টনার, লকি ফার্গুসন, ম্যাট হেনরি, ট্রেন্ট বোল্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *