Monday, September 23, 2019
Home > অান্তর্জাতিক > পুরুষ  সেজে সেলুন চালান দুই  বোন

পুরুষ  সেজে সেলুন চালান দুই  বোন

এপিপি বাংলা : অভাবের কারণে মানুষকে অনেক কিছুই করতে হয়। আর তিনি যদি হন নারী, তাহলে প্রতিবন্ধকতা যেন আরো বেশি। আমাদের রক্ষণশীল সমাজ এখনো নারীদের অনেক কাজ করাকে স্বীকৃতি দিতে চান না। তবুও তারা থেমে থাকতে রাজি নন। কৌশলে কোন না  কোন কাজ ঠিকই করে যাচ্ছেন।

সামাজিক বিধি-নিষেধের কারণে নিজেদের লম্বা চুল কেটে, ছেলেদের পোশাক পরে সেলুনে অন্যের চুল-দাড়ি কাটছেন তারা। এমনকি পারিবারিক নামও বদলে ফেলেছেন এই দুই বোন। ভারতের উত্তর প্রদেশের দুই কিশোরী এমন সংগ্রামে অবতীর্ণ হয়েছেন। এছাডা তাদের আর কোন রাস্তা খোলা ছিল না। আর এভাবেই কেটে গিয়েছে ৪ বছর।

১৮ ও ১৬ বছরের দুই কিশোরীর এমন কৌশলের কারণ একটাই। ভারতের উত্তর প্রদেশের ওই গ্রামে কোন পুরুষ নারীদের কাছে চুল-দাড়ি কাটেন না। তাই গত ৪ বছর যাবত জ্যোতি ও নেহা পুরুষ  সেজে বাবার সেলুনটি সাফল্যের সঙ্গেই চালিয়ে যাচ্ছেন।

এলাকাবাসী জানায়, এভাবেই সেলুন চালানোর সঙ্গে সঙ্গে তারা নিজেদের লেখাপড়াও চালিয়ে যাচ্ছেন। সকালে স্কুল করে এসে দুপুরের দিকে সেলুন খুলতেন তারা। এতে দিনে ৪০০ টাকা আয় হয় সেলুন থেকে। যদিও গ্রামে তাদের পরিচয় গোপন রাখা হতো। তা না হলে তাদের আয় বন্ধ হয়ে যেত।

সম্প্রতি ভারতের গোরক্ষপুরের একটি হিন্দি দৈনিকে তাদের এ সংগ্রামের কাহিনি পকাশ করা হয়। এ খবর ছড়িয়ে পডলে ভারত সরকারের দৃষ্টি পড়ে দুই বোনের ওপর। পরে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে তাদের সম্মান জানানো হয়। সরকারি কর্মকর্তা অভিষেক পান্ডে জানান, দুই বোনের সংগ্রামের কাহিনি অন্যদেরও উদ্বুদ্ধ করবে।

তবে খুশির খবর হচ্ছে- এসব জানাজানি হওয়ার পরেও তাদের খরিদ্দার কমে যায়নি। তারা তাদের ত্যাগ না করে বরং সহযোগিতা করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *