Wednesday, November 13, 2019
Home > বিশেষ সংবাদ > চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সব ধরনের সবজি

চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সব ধরনের সবজি

এপিপি বাংলা : শীতের আগাম সবজি শিম, ফুলকপি, পাতাকপি, মুলার পাশাপাশি বাজারে বেগুন, পটল, ঢেঁড়স, ঝিঙা, করলার পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকলেও সব ধরনের সবজির দাম আগের মতোই বেশ চড়া। ফলে সরবরাহ বাড়লেও সবজির দামে ক্রেতাদের স্বস্তি মিলছে না।

শুক্রবার (১১ অক্টোবর) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, আগের বাড়তি দামেই বিক্রি হচ্ছে সবজি। বিক্রেতারা বলছেন, এখন সবজির দাম কম হওয়ার কথা থাকলেও বন্যার কারণে দাম কমছে না। পাইকারি বাজারে বাড়তি দাম হওয়ায় খুচরাতেও বাড়তি রয়েছে বেশ কিছুদিন ধরে।

রাজধানীর রামপুরা, খিলগাঁও, খিলগাঁও রেলে গেট কাঁচা বাজার ও কারওয়ান বাজারে দেখা যায়, প্রতিকেজি টমেটো মানভেদে ১০০ থেকে ১১০ টাকা, গাজর ৬০ থেকে ১০৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এক সপ্তাহ আগেও একই দামে বিক্রি হয়েছে। একইভাবে আগের দামেই বিক্রি হতে দেখা গেছে অন্য সব সবজি। প্রতি কেজি পটল বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৫০ টাকা, ঝিঙা ৩৫ থেকে ৬০ টাকা, করলা, কাঁকরোল ৪০ থেকে ৬০ টাকা, বেগুন ৪০ থেকে ৮০ টাকা, ঢেঁড়স ৩০ থেকে ৫০ টাকা, শসা (হাইব্রড) ৪০ টাকা, শসা (দেশি) ৪৫ থেকে ৬০ টাকা, কচুর ছড়া ৫০ থেকে ৬০ টাকা, কচুর লতা ৪০ থেকে ৭০ টাকা, পেঁপে ৩০ থেকে ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

প্রতি কেজি শিম বিক্রি হচ্ছে ১২০-১৪০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ১০০-১২০ টাকা। শিমের দাম বাড়লেও কিছুটা কমেছে কপির দাম। ছোট আকারের ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ২০-৩০ টাকা পিস, যা গত সপ্তাহে ছিল ৪০-৫০ টাকা। গত সপ্তাহে ৪০-৫০ টাকা পিস বিক্রি হওয়া পাতা কপির দাম কমে বিক্রি হচ্ছে ৩০-৪০ টাকায়। দাম কমার এ তালিকায় আছে মুলাও। শীতের আগাম এ সবজিটির কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩০-৪০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ৫০-৬০ টাকা।

কয়েক মাস ধরে চড়া দামে বিক্রি হওয়া পাকা টমেটো ও গাজরের দাম এখনো চড়াই রয়েছে। পাকা টমেটো আগের সপ্তাহের মতো প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০-১৪০ টাকা কেজি। গাজর বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা কেজি, যা গত সপ্তাহে ছিল ৮০-১০০ টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *