Sunday, December 5, 2021
Home > জাতীয় সংবাদ > আর কোন নারী শ্রমিকের মরদেহ ফিরলে তীব্র আন্দোলন’

আর কোন নারী শ্রমিকের মরদেহ ফিরলে তীব্র আন্দোলন’

এপিপি বাংলা : সৌদি থেকে আর কোন নির্যাতিত নারী শ্রমিকের মরদেহ দেশে ফিরলে তীব্র আন্দোলন শুরু করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রগতিশীল নারী সংগঠনগুলো।

রোববার (১৭ নভেম্বর) সৌদি আরবে নারী গৃহ শ্রমিক নির্যাতন-ধর্ষণ-হত্যা বন্ধ ও প্রবাসী নারী শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করা হয়। স্মারকলিপি পেশ করে এ হুঁশিয়ারি দেন নারী নেত্রীরা।

সিপিবি নারী সেলের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক লক্ষ্মী চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে এবং সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শম্পা বসুর পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন শ্রমজীবী নারী মৈত্রীর সভাপতি বহ্নিশিখা জামালী, বাংলাদেশ নারীমুক্তি কেন্দ্রের সভাপতি সীমা দত্ত, নারী সংহতির কেন্দ্রীয় নেত্রী সুলেখা রহমান, বিপ্লবী নারী ফোরামের আহ্বায়ক আমেনা আক্তার, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেত্রী নীতি চাকমা।

এ সময় বিপ্লবী নারী ফোরামের আহ্বায়ক আমেনা আক্তার বলেছেন, সৌদি থেকে আর কোন নির্যাতিত নারী শ্রমিকের মরদেহ দেশে ফিরলে তীব্র আন্দোলন শুরু করা হবে।

প্রগতিশীল নারী সংগঠনের বক্তারা বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে সৌদি আরবে নারী গৃহ শ্রমিকদের দুঃসহ জীবন ও লাশ হয়ে দেশে ফেরার ঘটনা দেশবাসীকে ভীষণভাবে উদ্বিগ্ন করেছে। এ বছর জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সাড়ে ৮ মাসে ৮৫০ জন নারী সৌদি আরব থেকে দেশে এসেছে। আগস্ট মাসের এক দিনেই ১০৯ জন দেশে ফিরেছেন। এরা প্রায় প্রত্যেকেই শারীরিক, মানসিক ও যৌন নিপীড়নের শিকার।

বক্তারা আরও বলেন, শিক্ষাবঞ্চিত নারীরা ভাগ্যের চাকা ঘোরানোর আশায় বিদেশে যান কাজ করতে। কিন্তু পদে পদে তাদের ওপর নেমে আসে নির্যাতন। বিদেশে কাজ করতে যেয়ে লাশ হয়ে ফিরছেন অনেকেই। রেমিটেন্স পাঠানো এই শ্রমিকদের নিরাপত্তায় সরকার কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। এই সকল অনিয়ম ও দায়িত্ব অবহেলার বিচার যদি হত, তাহলে শত শত গৃহ শ্রমিকের লাশ হয়ে দেশে ফিরতে হত না। আমরা চাই সরকার এ ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নিবে।

স্মারকলিপিতে ৬ দফা দাবি তুলে ধরে প্রগতিশীল নারী সংগঠনসমূহ। এরমধ্যে মধ্যপ্রাচ্যের নারী গৃহকর্মীসহ অভিবাসী নারী শ্রমিকদের প্রয়োজনীয় আইনী সুরক্ষা, নিরাপত্তা নিশ্চিত, শ্রম আইন ও বিধি অনুযায়ী উপযুক্ত মজুরি আদায়ে কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

Like & Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *