Wednesday, November 25, 2020
Home > আঞ্চলিক সংবাদ > পদকের তালিকায় নাম না থাকায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি লিখলেন ওসি

পদকের তালিকায় নাম না থাকায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি লিখলেন ওসি

এপিপি বাংলা : প্রতিবছরের মতো এবারও পুলিশ সপ্তাহের অন্যতম আকর্ষণ বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম) এবং প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক (পিপিএম), বিপিএম (সেবা) ও বিপিএম (সাহসিকতা), পিপিএম (সেবা) ও পিপিএম (সাহসিকতা)- এই চারটি ক্যাটাগরিতে এবার ১১৮ জন পুলিশ সদস্যকে পদক দেয়া হচ্ছে।
চূড়ান্ত তালিকায় নিজের নাম না দেখে হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন কক্সবাজারের মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর।
চিঠিতে গত এক বছরে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও জলদস্যু আত্মসমর্পনে তার ভূমিকার উল্লেখ করে ন্যায়বিচার ও পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানিয়েছেন ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর।
উল্লেখ্য, গত এক বছরে অস্ত্র আইনে ৩৬টি মামলা রুজু করে শীর্ষ সন্ত্রাসী, জলদস্যু, অস্ত্রের কারিগর ও দুর্ধর্ষ ডাকাতসহ ১৩৭ জনকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করেছে কক্সবাজার পুলিশ। পাশাপাশি সাঁড়াশি অভিযানে ২০৮টি আগ্নেয়াস্ত্র, ৪৩০ রাউন্ড গুলি ও অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করেছেন।
এছাড়া আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য করেছেন ১২ জলদস্যু ও সন্ত্রাসী বাহিনীর ৯৬ জনকে।
আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশের আইজিপিসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, পুলিশ ও প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
এসব সাফল্যের পর বাংলাদেশ পুলিশের বিপিএম পদকে মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষের নাম আসছে এটি আলোচনার শীর্ষে ছিল। কারণ ক্রাইম জোনকে তিনি সাহসিকতার সঙ্গে যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করেছেন তাতে জেলা পর্যায়ে খুবই প্রশংসিত হয়।
মহেশখালী থানার ওসির সাহসিক কার্যক্রমের জন্য কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধরকে বিপিএম প্রদানের জন্য এবং চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজিকে প্রস্তাব প্রেরণ করেন। কিন্তু দুঃখজনক হলেও পুরস্কারের চূড়ান্ত তালিকায় তার নাম আসেনি।
মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর বলেন, মহেশখালীর মতো ক্রাইম জোনে আমি শান্তি ফেরাতে রাত-দিন কঠোর পরিশ্রম করেছি। পাশাপাশি যে পরিমাণ অস্ত্র, গুলি ও সন্ত্রাসী গ্রেফতার করেছি তাতে অবশ্যই স্বীকৃতি পাওয়ার দাবি রাখি। কিন্তু কেন চূড়ান্ত তালিকা থেকে আমার (প্রভাষ) নাম বাদ পড়ল তা জানি না। আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ আইজিপির নিকট নিজের সাহসিকতাপূর্ণ কাজের জন্য বিপিএম পুরস্কারের তালিকায় আমাকে পুনর্বিবেচনার আবেদন জানাচ্ছি।
প্রসঙ্গত আগামী ৫ থেকে ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত অনুষ্ঠিতব্য পুলিশ সপ্তাহে ১১৮ জন পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যের হাতে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত বছর রেকর্ডসংখ্যক ৩৪৯ পুলিশ সদস্যকে পদক দেয়া হয়েছিল।
পুলিশ সদর দফতর জানিয়েছে, যোগ্য সদস্যদের যাচাই-বাছাই করেই চূড়ান্ত হয়েছে তালিকা। এ সংক্রান্ত একটি গেজেটও প্রকাশ করা হবে।

Like & Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *