Tuesday, January 19, 2021
Home > রাজনীতি > যুব ও স্বেচ্ছাসেবক দল: বিএনপি হাইকমান্ডের হাতে পূর্ণাঙ্গ কমিটির খসড়া

যুব ও স্বেচ্ছাসেবক দল: বিএনপি হাইকমান্ডের হাতে পূর্ণাঙ্গ কমিটির খসড়া

এপিপি বাংলা : অবশেষে জাতীয়তাবাদী যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটি পূর্ণাঙ্গ হচ্ছে। তিন বছর ধরে ১২ জন নেতা দিয়ে চলছে এ দুই সংগঠন। অক্টোবরে সংগঠন দুটি পূর্ণাঙ্গ করার উদ্যোগ নেয় বিএনপি হাইকমান্ড।
সে অনুযায়ী যুবদলের ২৭১ সদস্য ও স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩০১ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটির খসড়া বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছে পাঠানো হয়েছে। তিনি তা আরও যাচাই-বাছাই করছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে এসব তথ্য।
সূত্র আরও জানায়, বিএনপির গুরুত্বপূর্ণ এ দুই সংগঠনে ছাত্রদলের সাবেক নেতাদের মধ্যে ত্যাগী ও যোগ্যদের পদ দেয়ার নির্দেশনা ছিল হাইকমান্ডের। খসড়ায় তাদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে কিনা এখন তা যাচাই করা হচ্ছে। এছাড়াও সম্প্রতি ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় (আংশিক) কমিটিতে বিবাহিত নেতাদের পদ দেয়া হয়নি। তাদের যোগ্যতা অনুযায়ী এ দুই সংগঠনে পদ দেয়া হবে। খসড়া সংযোজন-বিয়োজন করে যে কোনো সময় কমিটি ঘোষণা করা হবে। কেন্দ্রীয় কমিটির সঙ্গে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ শাখারও পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা হতে পারে।
যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু বলেন, আশা করছি শিগগিরই পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে। কমিটিতে রাজপথের পরীক্ষিত ও ত্যাগী নেতারা থাকবেন। যোগ্যতা অনুযায়ী ছাত্রদলের সাবেক নেতারাও কমিটিতে থাকবেন।
স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে। এতে সংগঠনের ত্যাগী ও যোগ্য নেতাদের পাশাপাশি সাবেক ছাত্রনেতারাও কমিটিতে থাকবেন বলে আশা করছি।
২০১৭ সালের ১৭ জানুয়ারি সাইফুল আলম নীরবকে সভাপতি ও সুলতান সালাউদ্দিন টুকুকে সাধারণ সম্পাদক করে যুবদলের সুপারফাইভ কমিটি ঘোষণা করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ সময় ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ যুবদলের জন্য আংশিক নাম ঘোষণা করা হয়। এক মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ করার নির্দেশনা দেয়া হয়। আর ২০১৬ সালের ২৭ অক্টোবর শফিউল বারী বাবুকে সভাপতি ও আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েলকে সাধারণ সম্পাদক করে স্বেচ্ছাসেবক দলের সাত সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করা হয়।
সূত্র জানায়, ছাত্রদলের মতো সরাসরি ভোটে যুব ও স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি করার পরিকল্পনা ছিল বিএনপি হাইকমান্ডের। তা বাস্তবায়নে এ দুই সংগঠনের সঙ্গে আলাদা বৈঠক করেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। ৯ অক্টোবর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যুবদলের নেতাদের সঙ্গে স্কাইপেতে বৈঠক করেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান।
কিন্তু এ সময় যুবদল নেতারা আরেকটু সুযোগ দেয়ার অনুরোধ জানিয়ে হাইকমান্ডকে জানান, আংশিক কমিটি রেখে নতুন কাউন্সিল হলে অনেক ত্যাগী নেতাকর্মী বাদ পড়বেন, যারা কোনো সাংগঠনিক পরিচয় দিতে পারবেন না। পূর্ণাঙ্গ হলে নতুন কাউন্সিলের আগেই অনেক নেতার রাজনৈতিক পরিচয় নিশ্চিত করা যাবে।
এ সময় তারেক রহমান যুবদল নেতাদের বক্তব্যে আশ্বস্ত হয়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে এক মাসের সময় বেঁধে দেন। এরপর বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাদের সঙ্গে স্কাইপেতে বৈঠক করেন তিনি। তারাও হাইকমান্ডকে আরেকটু সুযোগ দেয়ার অনুরোধ জানান। এ সময় তাদেরও সময় বেঁধে দেন। এরপর অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের কারণে দুই সংগঠনের নেতারা নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ করতে পারেননি। পরে তারা তিন দফা সময় বাড়িয়ে নেন।
ডিসেম্বর মাসের শুরুতে যুবদল ও মাঝামাঝিতে স্বেচ্ছাসেবক দল ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছে পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা দেন। একইসঙ্গে সংগঠন দুটির ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণেরও পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা দেন নেতারা।
সূত্র আরও জানায়, সম্প্রতি ছাত্রদলের ৬০ সদস্যের কেন্দ্রীয় (আংশিক) কমিটি ঘোষণা করা হয়। সেখানে বিবাহিত হওয়ার কারণে অন্তত ৪০ জন নেতা বাদ পড়েন। যারা বিগত আন্দোলন-সংগ্রামে সক্রিয় ছিলেন। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে অসংখ্য মামলাও রয়েছে। এজন্য যুব ও স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটিতে যোগ্যতা অনুযায়ী তাদের পদ দেয়া হবে। ইতিমধ্যে ওই সব নেতাদের বিষয়ে খোঁজও নিয়েছে বিএনপি হাইকমান্ড।
এদিকে যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলে পদ পেতে একাট্টা হয়েছেন সাবেক ছাত্রদলের নেতারা। যারা ত্যাগী ও পরীক্ষিত- এমন বেশ কিছু নেতা কয়েক দফা বৈঠকও করেছেন।
ছাত্রদলের সাবেক এক সহ-সভাপতি বলেন, ৮ বছর ধরে কোনো সংগঠনে জায়গা হয়নি। ওয়ান-ইলেভেনে আমরা রাজপথে ছিলাম, অতীতের সব আন্দোলনে ছিলাম। মামলায় জর্জরিত। অথচ আমাদের মূল্যায়ন করা হল না। আমরা চাই ছাত্রদলের যারা ত্যাগী নেতা, তাদের যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলে পদ দেয়া হোক। এবারও যদি আমাদের মূল্যায়ন করা না হয়, আমরা প্রতিবাদ জানাব। যা যা করা দরকার করব।সুূত্র : যুগান্তর।

Like & Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *