Friday, September 25, 2020
Home > জাতীয় সংবাদ > এক-একজন প্রবাসী এক-একজন রেমিটেন্স যোদ্ধা, দেশের সম্পদ: এডিসি তৈমুর

এক-একজন প্রবাসী এক-একজন রেমিটেন্স যোদ্ধা, দেশের সম্পদ: এডিসি তৈমুর

এস এম জীবন: বিদেশ মানেই যেনো একজন মধ্যবিত্ত, গরিব পরিবারের জন্য একটু শান্তি ও সচল ভাবে সমাজে জীবন যাপন করা। একজন প্রবাসীই জানে নিজের নিকট আত্মীয় স্বজনদের কে ছেড়ে হাজার মাইল দূরে থাকা কতটা কষ্টের আমরা জনি। তারপরেও একটু পরিবারের সবার মুখে হাসি ফুটানোর জন্য এ দেশের অর্থনৈতিক চাকা ঠিক রাখার জন্য অনেকেই অনেক ভাবে বিদেশ যান।আর এ জন্যই তো একজন প্রবাসী কে আমরা রেমিটেন্স যোদ্ধা নামেই চিনি। তারাই হাজারো কষ্ট বুকে চাপা দিয়ে এদেশের জন্য বিদেশের মাটিতে থেকে অনেক ভাল ভাল কাজ করে যাচ্ছেন।

সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে, বর্তমান সময়ে বিদেশ মানেই আতংক, বিদেশ মানেই জীবন এর ঝুঁকি নিয়ে কাজ করা এবং চোরাপথ ও দালাল এর মাধ্যমে বিদেশ যাওয়া। আর এমন সময় অনেক পরিবার তাদের কলিজার টুকরা ভাই ও ছেলেদেরকে হারিয়েছেন, শুধু মাত্র দালালদের মাধ্যমে বিদেশ গিয়ে আজ অনেকেই নিখোঁজ আছে, কেউ আবার দালাল এর মাধ্যমে বিদেশ পাড়ি দিতে গিয়ে জীবন দিয়েছেন। তেমনি দালাল চক্রের প্রতারণায় সর্বশেষ হয়ে অনেক পরিবার আজ রাস্তাই নেমে গেছে, আবার কেউ কেউ ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে সেই দালাল ও পাওনাদারদের কারনে। আমরা প্রতিদিন খবরের কাগজে দেখি কত প্রবাসী দালালদের মাধ্যমে চোরাপথে বিদেশে পাড়ি দিতে গিয়ে খুবই খারাপ অবস্থায় আছে।

আর এমন সময়ে বাংলাদেশের সকল প্রবাসী ভাইদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ ধারণ করে দেশমাতৃকার সেবা করার মহান ব্রত নিয়ে পুলিশের চাকরীতে আসা এক সময়ের তুখোড় ছাত্রনেতা আজকের সাহসী এবং চৌকস পুলিশ অফিসার এডিসি তৈমুর।

তাঁর বাবা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। পাবনার ঐতিহ্যবাহী আওয়ামী পরিবারের সন্তান এডিসি এ, জেড, এম তৈমুর রহমান, এডিসি (অপরাধ) ডিএমপি, বাংলাদেশের সকল প্রবাসী ভাইদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, প্রবাসী ভাইয়েরা এ দেশের বড় সম্পদ। তাদের জানাই হাজার সালাম ও শুভেচ্ছা। কারন তাদের জন্যই আজ আমরা বিদেশ থেকে কোটি কোটি টাকা রেমিটেন্স পাচ্ছি। কিন্তু আবার অনেকেই খুবই খারাপ অবস্থায় আছে যাদের জন্য আমরা কিছু কাজ করতে চাই, এতে করে অন্তত পক্ষে তারা জানতে পারে যে দালাল এর মাধ্যমে ও অবৈধ উপায়ে বিদেশ গেলে জীবন এর খুব ঝুঁকি রয়েছে। সম্প্রতি বিভিন্ন দেশে অবৈধ পথে যারা বিদেশ গিয়েছে তাদের নানা সমস্যাই সম্মুখীন হতে হচ্ছে এবং অনেকেই নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে মারাও গেছে।

এ জেড তৈমুর রহমান, এডিসি (অপরাধ), ডিএমপি আরো বলেন, যে সকল প্রবাসী/অভিবাসী আমার কলিজার টুকরা ভাইয়েরা আছেন, আপনারা সবাই সচেতন হন এবং দালাল বা অবৈধ পথে বিদেশ যাওয়া থেকে বিরত হন। যে কোন সমস্যা বা সন্দেহ জনিত কারনে আপনার নিকটস্থ পুলিশের সাহায্য নিন, আপনার যেকোন সমস্যা নিকটস্থ থানায় অথবা আইনশৃঙ্খলাবাহিনীকে জানান। যত কষ্টই হোক না কেনো, বৈধ পথে বিদেশ যাওয়ার চেষ্টা করবেন। কোন দালাল বা কুচক্রীর মুখের মিষ্টি কথায় ভুলবেননা।

তিনি আরো বলেন, প্রবাসীরা দেশে এসে এবং নতুন করে কেউ প্রবাসে যেতে গিয়ে দেশের কোথাও কোনভাবে যাতে প্রতারিত না হয়, সেদিকে প্রশাসনের কড়া নজর রাখতে হবে। আমাদের মনে রাখতে হবে এক-একজন প্রবাসী এক-একজন রেমিটেন্স যোদ্ধা, প্রবাসীরা হলো দেশের সম্পদ।

Like & Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *