Friday, September 25, 2020
Home > বিনোদন > ঐশ্বরিয়া-আরাধ্য করোনা পজিটিভ

ঐশ্বরিয়া-আরাধ্য করোনা পজিটিভ

এপিপি বাংলা : শনিবার নেওয়া নমুনার প্রথম পরীক্ষায় ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন, জয়া বচ্চন ও আরাধ্যর ‘কোভিড নেগেটিভ’ ফল আসে। তবে রোববার সকালে ঐশ্বরিয়া, আরাধ্য, জয়া, অমিতাভ বচ্চন ও জয়া বচ্চনের মেয়ে শ্বেতা নন্দা, শ্বেতা নন্দার ছেলের নমুনা নতুন করে সংগ্রহ করা হয়। সেই নমুনা পরীক্ষায় ঐশ্বরিয়া ও আরাধ্যর করোনা পজিটিভ এসেছে। টুইটারে মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ তোপ ঐশ্বরিয়া ও আরাধ্যর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন। অর্থাৎ বচ্চন পরিবারে অমিতাভ বচ্চন, অভিষেক বচ্চন, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও আরাধ্য করোনায় আক্রান্ত। এক দিনের ব্যবধানে তাঁরা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। দ্বিতীয়বারের পরীক্ষায় বাকিদের ফল নেগেটিভ এসেছে।
‘অমিতাভ বচ্চনের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। করোনার সামান্য কিছু লক্ষণ রয়েছে তাঁর। অমিতাভ বচ্চনকে হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করে রাখা হয়েছে, গুরুতর কিছু নয়। আশা করছি, তিনি দ্রুতই সুস্থ হয়ে উঠবেন’। গত শনিবার সন্ধ্যায় মুম্বাইয়ের নীনাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয় অমিতাভ বচ্চনকে। রোববার সকালে হাসপাতালের জনসংযোগ কর্মকর্তার পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই বিবৃতি দেওয়া হয়। সারা রাত উদ্বেগের পর এই খবর ভক্তদের জন্য এক পশলা স্বস্তির বৃষ্টি হয়ে এসেছে। রাতে অমিতাভ বচ্চনের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে ছেলে অভিষেক বচ্চনের কোভিড পজিটিভের খবর আসে। বাবা-ছেলে দুজনই এখন হাসপাতালে। আজ দ্বিতীয় দফা পরীক্ষায় ঐশ্বরিয়া ও আরাধ্যর করোনা পজিটিভ ধরা পরেছে। দ্বিতীয় পরীক্ষাতেও জয়া বচ্চনের করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ। শ্বেতা নন্দা ও তাঁর ছেলেরও করোনা নেগেটিভ। অর্থাৎ, জয়া বচ্চন, শ্বেতা নন্দা ও তাঁর ছেলে করোনামুক্ত।
ইতিমধ্যে ভক্তরা অমিতাভ বচ্চনের সুস্থতা কামনা করে ইনস্টাগ্রাম, ফেসবুক ও টুইটারে পোস্ট করছেন। অমিতাভ বচ্চনের বাসভবন ‘জলসা’ জীবাণুমুক্ত করে করোনা আক্রান্ত হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। শনিবার রাতে ৭৭ বছর বয়সী অমিতাভ বচ্চন নিজেই টুইটারে তাঁর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর নিশ্চিত করে লেখেন, ‘গত দশ দিনে যাঁরা আমার সংস্পর্শে এসেছেন, সবাই করোনা পরীক্ষা করান।’
তবে অনেকের মনেই প্রশ্ন, বচ্চন-পরিবার কীভাবে করোনায় আক্রান্ত হল!

Like & Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *