Wednesday, September 23, 2020
Home > জাতীয় সংবাদ > তিন শর্তে বেনাপোল দিয়ে ভারত ভ্রমণের অনুমতি

তিন শর্তে বেনাপোল দিয়ে ভারত ভ্রমণের অনুমতি

এপিপি বাংলা : মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ভারতে দীর্ঘদিন লকডাউন চলছে। পর্যায়ক্রমে অনেক দেশ লকডাউন শিথিল করছে। বিভিন্ন শর্তসাপেক্ষে ভিসা বা ফ্লাইটও পরিচালনা শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে তিন শর্তে প্রতিবেশী দেশ ভারত ভ্রমণের ভিসার ও অনুমতি দেওয়া হয়েছে। যেকোনও উদ্দেশ্যে ভারত-বাংলাদেশ যাতায়াত করতে চাইলে উভয় দেশের পাসপোর্টযাত্রীদের কয়েকটি নতুন শর্ত এবার থেকে মানতে হবে। তারপরই ভারত-বাংলাদেশ প্রবেশের অনুমতি মিলবে পাসপোর্ট যাত্রীদের।
বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন সূত্রে জানা গেছে, চিকিৎসা, ব্যবসা বা ভ্রমণ যেকোনও উদ্দেশ্যে ভারত-বাংলাদেশ যাতায়াত করতে চাইলে কয়েকটি শর্ত এবার থেকে মানতে হবে।
শুক্রবার (১৪ আগস্ট) বিকালে শর্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ওসি মহসিন কবির খান। শর্তগুলোর মধ্যে রয়েছে, বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীদের ভারতে যাওয়ার জন্য বৈধ পাসপোর্ট ও ২০২০ সালের ১ জুলাই ইস্যুকৃত ভিসা থাকতে হবে। পাশাপাশি ভারতীয় হাই-কমিশনের অনুমতিপত্র এবং যাত্রীর কোভিড-১৯ এর নেগেটিভ সার্টিফিকেট লাগবে। সেটা ৭২ ঘণ্টার মধ্যে হতে হবে। আর তখনই ভারতে প্রবেশ করা যাবে। একই পদ্ধতিতে ভারতীয় পাসপোর্টযাত্রীদের বাংলাদেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে নতুন ভিসা, স্বরাস্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতিপত্র ও কোভিড-১৯ এর নেগেটিভ সার্টিফিকেট। সেটাও ৭২ ঘণ্টার (৩ দিনের) মধ্যে হতে হবে। তবেই বাংলাদেশে প্রবেশে অনুমতি মিলবে ভারতীয় পাসপোর্টধারী যাত্রীদের।
করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউনের কারণে গত ১৩ মার্চ থেকে অনেক ভারতীয় পাসপোর্টধারী যাত্রী আটকে আছে বাংলাদেশে। কিন্তু সেই থেকে ভারতে আটকে থাকা বাংলাদেশি পাসপোর্ট যাত্রীরা নিজ দেশে ফিরতে পারলেও বাংলাদেশে অবস্থান করা ভারতীয় পাসপোর্টধারী যাত্রীরা এখনও তাদের দেশে ফিরতে পারেননি। ইতোমধ্যে অনেকের ভিসার মেয়াদও শেষ হয়ে গেছে।
তাদের দেশে ফেরার ক্ষেত্রেও রয়েছে নতুন শর্ত। শর্তের মধ্যে রয়েছে বৈধ পাসপোর্ট, ভিসা নবায়ন (জরিমানা ব্যতীত ভিসা ও ফি প্রদান পূর্বক) ভারতীয় হাই কমিশনের অনুমতিপত্র ও কোভিড-১৯ এর নেগেটিভ সার্টিফিকেট। সেই সার্টিফিকেট ৭২ ঘণ্টার মধ্যে হতে হবে। তারপর দেশে ফেরার আদেশ পাবেন তারা।

Like & Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *