Monday, January 18, 2021
Home > জাতীয় সংবাদ > গয়েশ্বর-ইশরাকসহ বিএনপির ১২০ নেতাকর্মীর আগাম জামিন

গয়েশ্বর-ইশরাকসহ বিএনপির ১২০ নেতাকর্মীর আগাম জামিন

এপিপি বাংলা : রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বাস পোড়ানোর ঘটনায় করা মামলায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, দলটির নির্বাহী কমিটির সদস্য প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন, ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী এসএম জাহাঙ্গীর হোসেনসহ অন্তত ১২০ নেতাকর্মীকে আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মো. হাবিবুল গনি ও বিচারপতি মো. রিয়াজউদ্দিন খানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ বুধবার এ আদেশ দেন।

আদালতে বিএনপি নেতার্মীদের পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিমকোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জয়নুল আবেদীন, ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল ও ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।

আগামী ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত জামিন দিয়ে এই ১২০ জনকে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে।

আইনজীবী রুহুল কুদ্দুস কাজল জানান, ১৬টি আবেদনে ১২০ জন নেতাকর্মীকে আগামী ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। এই সময়ের আগে কিংবা পরে জামিনপ্রাপ্তদের মহানগর দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে।

এর আগে গত রোববার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ জামিন আবেদন করেন বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।

পরে ব্যারিস্টার কায়সার বলেন, বিএনপির ৩৮ সিনিয়র নেতাসহ প্রায় পাঁচ শতাধিক কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছেন বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, যুবদল সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, ঢাকা-১৮ আসন উপনির্বাচনের প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন, ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল প্রমুখ।

ব্যারিস্টার কায়সার কামাল জানিয়েছিলেন, এ মামলায় যাদের আসামি করা হয়েছে, তাদের একজন ইশরাক হোসেন, যিনি আইসোলোশনে ছিলেন। অথচ তাকে গাড়ি পোড়ানোর মামলায় আসামি করা হয়েছে। আরেকজন আসামি জাহাঙ্গীর হোসেন উত্তরায় নির্বাচনী কাজে ব্যস্ত সময় পার করেছেন। অথচ তাকে খিলক্ষেত থানায় প্রধান আসামি করা হয়েছে।

ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনের দিন রাজধানীতে বাস পেড়ানোর অভিযোগে ১০টি মামলা হয়েছে। সেগুলোতে ৪৬০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

Like & Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *