Wednesday, August 4, 2021
Home > আঞ্চলিক সংবাদ > আইজিপি পদক পেলেন এএসআই মোঃ শামসুজ্জামান

আইজিপি পদক পেলেন এএসআই মোঃ শামসুজ্জামান

খাদিজা আক্তার ভাবনাঃ বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি’র হাতে ৯ম বারের মতো শ্রেষ্ঠ (এএসআই) পদক গ্রহন করলেন নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার এএসআই মো: শামসুজ্জামান।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় যোগদানের পর থেকেই নিজের মেধা, একাগ্রতা, কর্তব্যপরায়নতা এবং সাহসিকতা দিয়ে মাদক নির্মূল, অস্ত্র উদ্ধার চুরি ছিনতাই রোধে সহায়তা এবং সর্বোপরি নারায়ণগঞ্জ সদর থানাকে একটি মডেল থানা রুপান্তরে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছেন নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) মো: শামসুজ্জামান। যে কারনে ইতিপূর্বে বেশ কয়েকবার নির্বাচিত হয়েছেন ঢাকা রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ এএসআই।

তারই ধারাবহিকতায় এবারও সর্বাধিক মাদক উদ্ধার সহ ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী গ্রেফতারে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য টানা ৯ম বারের মতো ঢাকা রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ এএসআই নির্বাচিত হয়ে খোদ বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, বিপিএম (বার) এর হাত থেকে শ্রেষ্ঠত্বের পুরুষ্কার গ্রহন করলেন মাদক ব্যাবসায়ীদের যমদুত এবং ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামীদের মূর্তিমান আতংক নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার এএসআই মো: শামসুজ্জামান।

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) রাজধানীর সেগুন বাগিচায় ঢাকা রেঞ্জ কার্যালয়ে ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত রেঞ্জের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ১৩ জন পুলিশ কর্মকর্তাকে পুরস্কৃত করেন আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, বিপিএম (বার)। যার মধ্যে একজন ছিলেন এএসআই মোঃ শামসুজ্জামান।

এসময় সভায় রেঞ্জাধীন ১৩টি জেলার পুলিশ সুপারগণ এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, টানা ৯ম বারের মতো শ্রেষ্ঠ এএসআই পদকে ভুষিত হয়ে নিজের অনুভূতি ব্যাক্ত করে এএসআই শামসুজ্জামান বলেন, প্রতিটি পুরস্কার খুবই ভালো লাগে। কাজের গতিকে তরান্বিত করে এবং কাজের প্রতি প্রেরণা সৃষ্টি করে। আজকের এ সফলতার পেছনে যারা উৎসাহ উদ্দীপনা, এবং অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন আমি তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। আন্তরিকতা, সৎ ইচ্ছা , পরিশ্রম, কল্যাণমুখী চিন্তা চেতনাকে বাস্তবে প্রয়োগ করলে কাজের গতি ও সফলতাকে উপভোগ করা যায়। দেশ ও মানুষের সেবার মনমানসিকতা নিয়ে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেছি।

ইনশাআল্লাহ প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা হিসেবে যে থানায় নিয়োজিত থাকি না কেনো মাদক, সন্ত্রাসমুক্ত , অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক, পরোয়ানাভুক্ত আসামী গ্রেপ্তার এবং সর্বোপরি নিরাপত্তার চাদরে আচ্ছাদিত করতে আমার শারীকিক, ও মানসিক শ্রম অব্যাহত থাকবে।

সেই সাথে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি আমার সফলতার পেছনে শ্রম দিয়ে সহযোগিতা করা স্থানীয় বাসিন্দা যারা এই দেশের আইন কে ভালবেসে এগিয়ে এসেছেন।

Like & Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *