Friday, July 30, 2021
Home > জাতীয় সংবাদ > কাদিয়ানীদেরকে রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে —- খেলাফত আন্দোলন

কাদিয়ানীদেরকে রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে —- খেলাফত আন্দোলন

 

এপিপি বাংলা : বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত হাফেজ মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী ব্রাহ্মণবাড়িয়া মাদরাসার ছাত্রদের উপর হামলাকারী সন্ত্রাসী কাদিয়ানীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানিয়ে বলেছেন, বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ সা. সর্বশেষ নবী। তাঁকে শেষ নবী না মানলে ঈমান থাকবে না। বিশ্বনবী মুহাম্মদ সা.কে সর্বশেষ নবী হিসেবে অস্বীকারকারী কাদিয়ানী সম্প্রদায় বিশ্বের সর্বস্তরের ওলামায়ে কেরামের ফতোয়া অনুযায়ী অমুসলিম ও কাফের। তাই সরকারী ভাবে কাদিয়ানী সম্প্রদায়কে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে। যেন তারা সাধারণ মুসলমানদেরকে বিভ্রান্ত করতে না পারে। কাদিয়ানীদেরকে রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা না করা পর্যন্ত ঈমানের বলে বলীয়ান হয়ে ‘খতমে নবুওয়ত’ আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে।
আজ বৃহস্পতিবার বাদ আসর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদরাসার ছাত্রদের উপর হামলাকারী সন্ত্রাসী কাদিয়ানীদের দষ্টান্তমূলক শাস্তি ও কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রীয়ভাবে কাফের ঘোষণার দাবীতে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে সভাপতির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন দলের মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী, নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন, দপ্তর সম্পাদক মাওলানা সানাউল্লাহ, মুফতি ইলিয়াছ মাদারীপুরী, মুফতি আফম আকরাম হুসাইন ও মুফতি আবুল হাসান কাসেমী প্রমুখ।
মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী বলেন, বিশ্বনবী মুহাম্মদ সা. সর্বশেষ নবী। তাঁকে শেষ নবী না মানলে ঈমান থাকবে না। কাফের কাদিয়ানীরা মুসলিম পরিচয়ে সাধারন মুসলমানদেরকে বিভ্রান্ত করে আসছে। কাদিয়ানীরা ইসলাম, দেশ ও দেশের জনগণের জন্য হুমকি। অবিলম্বে তাদের সকল তৎপরতা বন্ধ করতে হবে।

মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী বলেন, কাদিয়ানীরা ইসলাম, মহানবী সা. এর দুশমন এবং দেশের স্বাধীনতার জন্য হুমকি স্বরূপ। কাদিয়ানীরা নতুন ভাবে দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পায়তারা চালাচ্ছে। তাদের সকল ষড়যন্ত্র বন্ধ ও ইসলামী পরিভাষা যেমন নামায-রোজা, হজ্জ-যাকাত, কুরআন-হাদিস, মসজিদ-মাদরাসা ব্যবহার নিষিদ্ধ করতে হবে।
মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন বলেন, কাফের কাদিয়ানীরা অমুসলিম পরিচয়ে এদেশে বসবাস করতে পারে কিন্তু মুসলিম পরিচয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করার কোন অধিকার নেই। অবিলম্বে তাদের সকল অপতৎপরতা বন্ধ করে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে। সরকারী ভাবে কাদিয়ানী সম্প্রদায়কে অমুসলিম ঘোষণা না করলে আন্দোলনের দাবানল সারাদেশে ছড়িয়ে পরবে।

Like & Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *